শিরোনাম :
নবীনগরে রাতের আঁধারে ভেকু দিয়ে ফসলি জমি কাটার সময় ইউএনও’র বিশেষ অভিযানে আটক ৩  আর কখনো পাঠকের হাতে পত্রিকা তুলে দিবেন না লোকমান হেকিম চৌধুর নবীনগরে সাংবাদিকদের সাথে উপজেলা চেয়ারম্যান প্রার্থী শাহ আলমের মতবিনিময় নবীনগরে ১৫ আগস্ট জাতীয় শোক দিবস উপলক্ষে আলোচনা সভা, শিক্ষাবৃত্তি প্রদান ও শেখ হাসিনা একাডেমিক ভবন উদ্বোধন নবীনগরে ২৫টি ভূমিহীন ও গৃহহীন পরিবারের মাঝে আশ্রয়ণ প্রকল্পের জমি সহ পাকাঘর প্রদান নবীনগরে পিস্তলসহ এক যুবক গ্রেফতার নবীনগরে মাদকাসক্ত ছেলের ছুরির আঘাতে পিতা হাসপাতালে- অবস্থা শঙ্কামুক্ত না হওয়ায় ঢাকায় প্রেরণ  নবীনগর পৌরসভার মেয়র শিব শংকর দাশ ৩ হাজার তালের চারা গাছ রোপন করেছেন নবীনগরে ২দিন ব্যাপী সাহিত্য মেলার উদ্বোধন নবীনগরে তুচ্ছ ঘটনায় রক্তক্ষয়ী সংঘর্ষ, আহত ৩০
শনিবার, ০২ মার্চ ২০২৪, ১২:২০ অপরাহ্ন

বাঞ্ছারামপুরে ধর্ষণ করে হত্যা,৫ দিন পর থানায় আত্মহত্যা ও প্ররোচনা মামলা, আটক -১

প্রতিনিধির নাম / ১৩৩ বার
আপডেট : মঙ্গলবার, ১৩ জুন, ২০২৩

বাঞ্ছারামপুর প্রতিনিধি: মামলার এজাহারে মামলার বাদী শাহীন মিয়া উল্লেখ করেন যে, নবীনগর উপজেলার ভিটিবিষাড়া গ্রামের আমার আপন ভাগ্নি মরিয়ম (৩৫) আমার ভাগ্নি মরিয়মের স্বামী প্রবাসে থাকার সুযোগে একই ইউপির খাগাতুয়া গ্রামের ফারুকুল ইসলাম (ফারুক মেম্বার) এর দ্বীতিয় ছেলে বিবাদী আবু সায়েদের সাথে বিগত ০৬ পূর্বে মোবাইল ফোনে প্রেমের সম্পর্ক গরে উঠে গ্রেফতার কৃত ০১নম্বর আসামী আবু সায়েদ বিভিন্ন ছলচাতুরী পূর্ন কথাবার্তা বলিয়া আমার ভাগ্নির সাথে ঘনিষ্ঠ সম্পর্ক গড়িয়া তোলে এবং বিভিন্ন স্হানে দেখাসাক্ষাৎ করিয়া ও বিয়ের প্রলোভন দেখাইয়া শারীরিক সম্পর্ক স্হাপন করে। একপর্যায়ে মরিয়ম আক্তার গত ০৪মাাস পূর্বে অন্তঃসত্ত্বা হইয়া পড়িলে গ্রেফতার কৃত আসামি আবু সায়েদ বিবাহের কথা অস্বীকার করে ও উক্ত সন্তান নষ্ট করার জন্য বলিয়া তাহাকে বিভিন্ন ধরনের মানসিক চাপসৃষ্টি করিতে থাকে। আমার ভাগ্নি আসামি আবু সায়েদ কে বিবাহের কথা বলিলে আসামী সায়েদ আমার ভাগ্নি কে বিবাহ না করিয়া বিভিন্ন ভাবে তালবাহানা পূর্ন কথাবার্তা বলিয়া সময় ক্ষেপণ করতে থাকে। এছাড়াও আসামী আবু সায়েদ আমার ভাগ্নির কাছে প্রবাসী স্বামীর জমানো বহু টাকাপয়সা নিয়া আত্মসাৎ করে। আসামি আবু সায়েদের উক্ত আচরণে আমার ভাগ্নি বেশকিছু দিন ধরে মানসিক ভাবে ভেঙ্গে পরে। গত ০৫/০৬/২০২৩ইং সোমবার দুপুরবেলা আসামী আবু সায়েদ আমার ভাগ্নি মরিয়ম আক্তার কে সাথে নিয়া বাঞ্ছারামপুর আসিয়া বিসমিল্লাহ রেষ্টুরেন্টে একত্রে খাওয়াদাওয়া করে ঐ সময় আসামি আবু সায়েদ আমার ভাগ্নি মরিয়ম আক্তার কে বাঞ্ছারামপুর সরকারি হাসপাতালে আনিয়া তার গর্ভের সন্তানটি নষ্ট করার জন্য চাপসৃষ্টি ও মানসিক নির্যাতন শুরু করে। আমার ভাগ্নি গর্ভের সন্তান নষ্ট করতে রাজী না হলে আসামী আবু সায়েদ আমার ভাগ্নির সাথে সম্পর্ক রাখবেনা বলে সাফ জানিয়ে দেবার সাথেসাথে আমার ভাগ্নি পার্শবর্তী বাঞ্ছারামপুর ইসলামি ব্যাংকের সামনের রাস্তায় কেড়ির বড়ি খেয়ে গুরুতর অসুস্থ হইয়া পরে। ঐসময় আসামি আবু সায়েদ পালিয়ে যাবার চেষ্টা করিলে স্হানীয় লোকজন আবু সায়েদ কে আটক করিলে সে বিস্তারিত ঘঠনা স্বীকার করে তখন স্হানীয় লোকজনের সহায়তায় আমার ভাগ্নিকে বাঞ্ছারামপুর সরকারী হাসপাতালে এনে প্রাথমিক চিকিৎসার একপর্যায়ে আমার ভাগ্নির শারীরিক অবস্থা আশংকাজনক হওয়ায় তাহাকে ঢাকা মেডিকেল কলজে হাসপাতালে রেফার্ড করা হয় ০৬/০৬/২০২৩ইং মঙ্গলবার রাত- ০২.২০ঘটিকার সময় মৃর্ত্যবরন করে। ডিএমপি শাহবাগ থানা পুলিশ আমার ভাগ্নির মৃতদেহের সুরতহাল প্রতিবেদন প্রস্তুত করতঃ লাশ ময়ানতদন্ত জন্য প্রেরণ করেন আমার ভাগ্নির চিকিৎসা ও দাফন কাজে ব্যস্ত থাকায় থানায় অভিযোগ দাখিলে বিলম্ব হয়েছে বলে বাদী শাহীন মিয়া মামলার এজাহারে উল্লেখ করেন।


আপনার মতামত লিখুন :

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

এ জাতীয় আরো সংবাদ