শিরোনাম :
নবীনগরে ১৫ আগস্ট জাতীয় শোক দিবস উপলক্ষে আলোচনা সভা, শিক্ষাবৃত্তি প্রদান ও শেখ হাসিনা একাডেমিক ভবন উদ্বোধন নবীনগরে ২৫টি ভূমিহীন ও গৃহহীন পরিবারের মাঝে আশ্রয়ণ প্রকল্পের জমি সহ পাকাঘর প্রদান নবীনগরে পিস্তলসহ এক যুবক গ্রেফতার নবীনগরে মাদকাসক্ত ছেলের ছুরির আঘাতে পিতা হাসপাতালে- অবস্থা শঙ্কামুক্ত না হওয়ায় ঢাকায় প্রেরণ  নবীনগর পৌরসভার মেয়র শিব শংকর দাশ ৩ হাজার তালের চারা গাছ রোপন করেছেন নবীনগরে ২দিন ব্যাপী সাহিত্য মেলার উদ্বোধন নবীনগরে তুচ্ছ ঘটনায় রক্তক্ষয়ী সংঘর্ষ, আহত ৩০ নবীনগরে দেশীয় অস্ত্র সস্ত্র নিয়ে মুক্তিযোদ্ধার বাড়ীতে হামলা ও ভাংচুর আটক (১)। নবীনগর উপজেলা আওয়ামীলীগের সাবেক সভাপতি ও সাবেক ইউপি চেয়ারম্যান  ফুল মিয়ার কুলখানি সম্পন্ন নবীনগরে কৃষি মেলার উদ্বোধন
শনিবার, ২৪ ফেব্রুয়ারী ২০২৪, ০৫:২৭ পূর্বাহ্ন

জ্ঞাত আয় বহির্ভূত সম্পদ অর্জনের অভিযোগ! এবার নবীনগরে মহিলা ভাইস চেয়ারম্যান ও তার স্বামীর বিরুদ্ধে দুদকের মামলা!

প্রতিনিধির নাম / ৯৩ বার
আপডেট : শনিবার, ২৭ মে, ২০২৩

তিতাস নিউজ ডেস্কঃ 
জ্ঞাত আয় বহির্ভূত সম্পদ অর্জনের অভিযোগে ব্রাহ্মণবাড়িয়ার নবীনগর উপজেলার মহিলা ভাইস চেয়ারম্যান শিউলী রহমান ও তাঁর স্বামী বর্তমানে কুয়েত বাংলাদেশ সরকারি মৈত্রী হাসপাতাল এর স্টোর অফিসার হাবিবুর রহমানের বিরুদ্ধে দুদকে দায়ের হওয়া মামলাটি নিয়ে স্থানীয় বিভিন্ন মহলে এখন আলোচনার ঝড় বইছে।
বৃহস্পতিবার (২৫ মে) দুর্নীতি দমন কমিশনের (দুদক) কুমিল্লা সমন্বিত জেলা কার্যালয়ের সহকারী পরিচালক রাফী মো. নাজমুস সাদাৎ বাদী হয়ে কুমিল্লায় এ মালাটি  দায়ের করেছেন, এমন খবর চাওর হওয়ার পরপরই নবীনগরের সর্বত্র এ নিয়ে তোলপাড় শুরু হয়। এর আগে একই দিনে (বৃহস্পতিবার) নবীনগরের উপজেলা ভাইস চেয়ারম্যান (পুরুষ) জাকির হোসেন সাদেকের বিরুদ্ধেও নানা অনিয়ম, দুর্নীতি ও ক্ষমতার অপব্যাবহারের অভিযোগ এনে এলজিআরডি মন্ত্রণালয়ে প্রতিকার চেয়ে আবেদন করেন মাওলানা মেহেদী হাসান নামের এক স্থানীয় ধর্মীয় রাজনৈতিক নেতা।
এদিকে একইদিনে দুই জনপ্রতিনিধি’র পৃথক দুটি বিষয় নিয়ে গত দুদিন ধরে ব্যাপক আলোচনার প্রেক্ষিতে বর্তমানে সেটি নবীনগরে ‘টক অব দ্যা টাউনে’ পরিণত হয়েছে। এ নিয়ে ফেসবুকেও সমালোচনার ঝড় চলছে।
দুদকের মামলার নথিপত্র সূত্রে জানা যায়, মামলার ১ নং আসামি উপজেলার চিত্রি গ্রামের বাসিন্দা মো. হাবিবুর রহমান এবং তার স্ত্রী ২ নং আসামি উপজেলা মহিলা ভাইস চেয়ারম্যান শিউলী রহমান ওরফে মোসাম্মাৎ শিউলী আক্তার একে অপরের সহযোগিতায় মোট ১ কোটি ৪ লাখ ১৪হাজার ৭৬৪ টাকার জ্ঞাত আয় বহির্ভূত সম্পদ অর্জনপূর্বক ভোগদখলে রেখেছেন।
দুদকের অনুসন্ধ্যানে জানা যায়, হাবিবুর রহমান ১৯৮৮ সালে স্বাস্থ্য সহকারী পদে স্বাস্থ্য বিভাগের অধীন নবীনগর উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্স-এ যোগদান করেন। তিনি ১৯৯৩ সালে স্টোর কিপার পদে এবং ২০১৫ সালে স্টোর অফিসার পদে পদোন্নতি লাভ করে বর্তমানে কুয়েত বাংলাদেশ মৈত্রী হাসপাতাল, উত্তরা, ঢাকায় কর্মরত আছেন। হাবিবুর রহমানের নামে ৫৫ লাখ ৯১হাজার ৬৬৬ টাকার স্থাবর সম্পদ এবং ৩২ লাখ ৮০হাজার টাকার অস্থাবর সম্পদ অর্জন করার তথ্য পাওয়া যায়। অর্থাৎ তিনি তার নিজ নামে সর্বমোট ৮৮ লাখ ৭১ হাজার ৬৬৬ টাকা মূল্যের স্থাবর ও অস্থাবর সম্পদের মালিকানা অর্জন করেছেন। এছাড়া তার আয়কর নথিতে প্রদর্শিত পারিবারিক ব্যয় ১৫ লাখ ৬হাজার ৫০৮টাকা। অর্থাৎ পারিবারিক ব্যয়সহ তার মোট সম্পদের পরিমাণ দাঁড়ায় ১ কোটি ৩লাখ ৭৮ হাজার ১৭৪টাকা। উক্ত সম্পদ অর্জনের বিপরীতে ২০১৭-১৮ করবর্ষে আয়কর নথি খোলার সময় পূর্বের বছরগুলোতে চাকুরীর বেতন-ভাতা হতে সঞ্চয় এবং আয়কর নথি খোলার পরের বেতন-ভাতাসহ মোট আয় পাওয়া যায় ৭৮ লাখ ৮৮ হাজার ৫০৮ টাকা। অর্থাৎ অনুসন্ধানকালে তার নামে অর্জিত সম্পদের চেয়ে আয়ের উৎস ২৪ লাখ ৮৯ হাজার ৬৬৬ টাকা কম পাওয়া যায়।
অপরদিকে তার স্ত্রী মহিলা ভাইস চেয়ারম্যান শিউলী রহমান ওরফে মোসাম্মাৎ শিউলী আক্তার এর স্থাবর-অস্থাবর সম্পদের তথ্য ও আয়-ব্যয় পর্যালোচনায় দেখা যায়, শিউলী রহমান ২০১৯ সাল থেকে নবীনগর উপজেলা পরিষদের ভাইস চেয়ারম্যান হিসেবে দায়িত্ব পালন করে আসছেন। তিনি ২০১৪-১৫ করবর্ষ হতে ২০২১-২২ করবর্ষ পর্যন্ত খাতভিত্তিক আয়-ব্যয়ের হিসাব বিবরণী দাখিল করে আসছেন। তিনি তার দুই পুত্রের নিকট থেকে হেবা ঘোষনাপত্রের মাধমে প্রাপ্ত স্থাবর সম্পদ ব্যতীত তার নামে ১ কোটি ১৫ লাখ ৪৫ হাজার টাকার স্থাবর সম্পদ এবং ৪৯ লাখ ৩২হাজার ৫১৪ টাকার অস্থাবর সম্পদ অর্জন করেছেন মর্মে তথ্য পাওয়া যায়। অর্থাৎ তিনি তার নিজ নামে সর্বমোট ১ কোটি ৬৪ লাখ ৭৭ হাজার ৫১৪ টাকা মূল্যের স্থাবর ও অস্থাবর সম্পদের মালিকানা অর্জন করেছেন।
তার পারিবারিক ও অন্যান্য ব্যয়ের হিসেবে পাওয়া যায় ২৬ লাখ ৫৮হাজার ৯৩৩ টাকা। অর্থাৎ পারিবারিক ব্যয়সহতার মোট সম্পদের পরিমাণ ১কোটি ৯১লাখ ৩৬হাজার ৪৪৭ টাকা। এ সম্পদ অর্জনের বিপরীতে ২০১৪-১৫ করবর্ষে আয়কর নথি খোলার পূর্বের বছরগুলোতে বিভিন্ন আয় এবং আয়কর নথি খোলার পরের ব্যবসা বাড়ী ভাড়া ও ভাইস চেয়ারম্যান হিসেবে প্রাপ্ত ভাতাসহ তার ১ কোটি ১২লাখ ১১ হাজার ৩৪৯টাকার আয়ের উৎস পাওয়া যায়। অর্থাৎ তার নামে অর্জিত সম্পদের চেয়ে ৭৯লাখ ২৫হাজার ৯৮টাকার আয়ের উৎস কম পাওয়া যায়।
দুদকের সার্বিক অনুসন্ধানকালে স্টোর অফিসার মো. হাবিবুর রহমান এবং তার স্ত্রী মহিলা ভাইস চেয়ারম্যান শিউলী রহমানের ১ কোটি ৪লাখ ১৪ হাজার ৭৬৪ টাকার জ্ঞাত আয় বহির্ভূত সম্পদ অর্জনের তথ্য পাওয়া যায়।
এ ঘটনায়  দুর্নীতি দমন কমিশন (দুদক)এর কুমিল্লা সমন্বিত জেলা কার্যালয়ের সহকারী পরিচালক রাফী মো. নাজমুস্ সা’দাৎ বাদী হয়ে বৃহস্পতিবার ওই আলোচিত মামলাটি দায়ের করেন।
এ বিষয়ে নবীনগর উপজেলা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক জহির উদ্দিন চৌধুরী শাহান বলেন, মহিলা ভাইস চেয়ারম্যান শিউলি রহমান আমাদের দলের কেউ না।
উপজেলা চেয়ারম্যান মো. মনিরুজ্জামান মনির বলেন, মামলা হলেই কেউ দোষী সাব্যস্ত হয়ে যায় না। মামলায় দুষি সাব্যস্ত হওয়ার আগ পর্যন্ত আমরা বাজে কমেন্টস করা থেকে বিরত থাকি।
এ বিষয়ে কথা বলতে আজ শুক্রবার দুপুরে নবীনগরের মহিলা ভাইস চেয়ারম্যান শিউলী রহমানের মুঠোফোনে কল দেওয়ার পর তিনি বলেন, মামলা যে কারো বিরুদ্ধেই হতে পারে। মামলা হলেই কেউ দোষী সাব্যস্ত হয়ে যায় না। আমরা আমাদের সম্পদের হিসাব দিয়ে ইনকাম ট্যাক্স দিচ্ছি। এ বিষয়ে আমরা আইনিভাবে মোকাবেলা করবো।


আপনার মতামত লিখুন :

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

এ জাতীয় আরো সংবাদ