শিরোনাম :
নবীনগরে রাতের আঁধারে ভেকু দিয়ে ফসলি জমি কাটার সময় ইউএনও’র বিশেষ অভিযানে আটক ৩  আর কখনো পাঠকের হাতে পত্রিকা তুলে দিবেন না লোকমান হেকিম চৌধুর নবীনগরে সাংবাদিকদের সাথে উপজেলা চেয়ারম্যান প্রার্থী শাহ আলমের মতবিনিময় নবীনগরে ১৫ আগস্ট জাতীয় শোক দিবস উপলক্ষে আলোচনা সভা, শিক্ষাবৃত্তি প্রদান ও শেখ হাসিনা একাডেমিক ভবন উদ্বোধন নবীনগরে ২৫টি ভূমিহীন ও গৃহহীন পরিবারের মাঝে আশ্রয়ণ প্রকল্পের জমি সহ পাকাঘর প্রদান নবীনগরে পিস্তলসহ এক যুবক গ্রেফতার নবীনগরে মাদকাসক্ত ছেলের ছুরির আঘাতে পিতা হাসপাতালে- অবস্থা শঙ্কামুক্ত না হওয়ায় ঢাকায় প্রেরণ  নবীনগর পৌরসভার মেয়র শিব শংকর দাশ ৩ হাজার তালের চারা গাছ রোপন করেছেন নবীনগরে ২দিন ব্যাপী সাহিত্য মেলার উদ্বোধন নবীনগরে তুচ্ছ ঘটনায় রক্তক্ষয়ী সংঘর্ষ, আহত ৩০
শনিবার, ০২ মার্চ ২০২৪, ১২:৩৬ অপরাহ্ন

নরসিংদী খোদাদিলা গ্রামে দিপু চেয়ারম্যানের সমর্থক বনাম এড, আসাদুল্লাহ সমর্থকদের টেটা যুদ্ধ আহত ১০

প্রতিনিধির নাম / ১৪১ বার
আপডেট : শুক্রবার, ২১ জুলাই, ২০২৩

বিশেষ প্রতিনিধি:
নরসিংদী সদর উপজেলার আলোকবালীর খোদাদিলা গ্রামে দিপু চেয়ারম্যান সমর্থক জাকির ,জজ মিয়া বাহিনী বনাম এডভোকেট আসাদুল্লাহর সমর্থক সেলিম ,তোফাজ্জল বাহিনীর দুপক্ষের সংঘর্ষে টেঁটাবিদ্ধ নাজমুল শিকদার (১৯)। গত ২০ জুলাই বৃহস্পতিবার বেলা ১১টায় নরসিংদী সদর হাসপাতালে টেটা বৃদ্ধ হয়ে ভর্তি হয়েছে গত ২০ জুলাই বৃহস্পতিবার ভোর সাড়ে পাঁচটার দিকে আলোকবালী ইউনিয়নের খোদাদিলা এলাকায় এই সংঘর্ষ শুরু হয়। খবর পেয়ে নরসিংদী মডেল থানার পুলিশ সকাল সাড়ে ১০টায় ঘটনাস্থলে গিয়ে পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে আনে।
স্থানীয় সূত্রে জানা যায়, আলোকবালী ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান দিপুর সমর্থক জাকির ,হাসান আলী , জজ মিয়া গং বনাম আলোকবালি ইউনিয়ন আওয়ামী লীগের সভাপতি এডভোকেট আসাদুল্লাহ র সমর্থক সেলিম, আল ইসলাম ,তোফাজ্জল , অনুসারীদের মধ্যে এই সংঘর্ষের ঘটনা ঘটে। এলাকায় আধিপত্য বিস্তারকে কেন্দ্র করে সংঘর্ষে ঘটনা ঘটে । জাকির বাহিনী নিলক্ষা থেকে চোর ডাকাত অস্ত্র বাজ খোদাদিলা গ্রামে এনে গরু চুরি লুটপাট ভাঙচুর ডাকাতি করে আসছে এ ব্যাপারে জাকির দীর্ঘদিন জেল খেটেছে, বর্তমানে সে জামিনে বাহিরে এসে গ্রামে আধিপত্য বিস্তারের চেষ্টা করে এবং গ্রামে পুনরায় অপকর্ম চালানোর জন্য ভাড়া করে সন্ত্রাসী এনে মারামারি করে এলাকায় আধিপত্য বিস্তারের চেষ্টা করে এই ঘটনায় আহত হয় ১০ জন । আহতরা হলেন নাজমুল শিকদার (১৯), মো. হালিম মিয়া (৫০), হারুন মিয়া (২০), মাসুদ রানা (২৪), আল আমিন (৩০), শফিউল্লাহ (৩৫), নাহিদ সরকার (২২) ও সাকিব সরকার (২৪)। শরীরের চার জায়গায় টেঁটাবিদ্ধ হয়ে নরসিংদী সদর হাসপাতালে ভর্তি থেকে চিকিৎসা নিচ্ছেন নাজমুল শিকদার। তাঁর বাড়ি রায়পুরা উপজেলার নিলক্ষায়। এ ছাড়া আহত অপর সাত জনের বাড়ি খোদাদিলা গ্রামে। তাঁরা শহরের বিভিন্ন হাসপাতালে চিকিৎসা নিয়েছেন। তবে আহত ব্যক্তিরা কে কোন পক্ষের, তাৎক্ষণিকভাবে জানা যায়নি। নীলক্ষার এক কিশোর সন্ত্রাসী একটি অস্ত্র সহ জনতার হাতে আটক হয় সে জানায় জাকির তাকে সহ ২০ জনের একটি দাঙ্গাবাজ দল ২০ লক্ষ টাকা কন্ট্রাকে ভাড়া করে আনেন তার শিকারতিমূলক একটি ভিডিও ক্লিপ সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে ভাইরাল হয় । হাসপাতালের জরুরি বিভাগের চিকিৎসক রেজওয়ানা জেবিন জানান, টেঁটাবিদ্ধ নাজমুলকে পুলিশই হাসপাতালে নিয়ে আসে। তাঁর শরীরের তিন জায়গা থেকে টেঁটা অপসারণ করা হয়েছে। আরেক জায়গায় টেঁটার আঘাতের চিহ্ন রয়েছে। তাঁকে পুরুষ ওয়ার্ডে ভর্তি রেখে চিকিৎসা দেওয়া হচ্ছে। এ বিষয়ে জয়নাল আবদীন সরকারের সাথে মুঠোফোনে যোগাযোগ করলে সে জানান আমি ব্যবসায়ী মানুষ মনিপুরা বাজারে আমার ওয়ালটনের শোরুম রয়েছে গ্রামে জাকির হাসান আলী জজ মিয়া গং নিলক্ষা থেকে অস্ত্র সহ দাঙ্গাবাজ বাহিনী ভাড়া করে এনেছে গ্রামে ভাঙচুর লুটপাট করার জন্য গ্রামবাসী ঐক্যবদ্ধ হয়ে দাঙ্গাবাজদের কে প্রতিহত করেছে এবং গণধোলাই দিয়েছে আমি কোন ঝগড়া ঝাঁটিতে নাই ঝগড়া হয়েছে আওয়ামী লীগ আওয়ামী লীগ আমি গ্রামে শান্তি চাই । অপরদিকে জাকির হাসেন পলাতক রয়েছে । নরসিংদী মডেল থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা আবুল কাশেম ভূঁইয়া গণমাধ্যমকে জানিয়েছেন এলাকায় বর্তমানে শান্তি বিরাজ করছে । এই বিষয়ে আলোক বালি ইউনিয়ন আওয়ামী লীগের সভাপতি এডভোকেট আসাদুল্লাহ জানান দিপু চেয়ারম্যানের সমর্থক জাকির হাসান আলী জজ মিয়া তারা টাউট বাটপার ওদের নামে একাধিক মামলা রয়েছে__এলাকায় সন্ত্রাসী কর্মকান্ড চালানোর চেষ্টা করলে আওয়ামী লীগের নেতা সেলিম ,তোফাজ্জল ,আল ইসলাম তাদেরকে গণধোলাই দিয়েছে । অপরদিকে বিভিন্ন গণমাধ্যমে আওয়ামী লীগ বিএনপির মাঝে টেটা যুদ্ধের তকমা দিয়ে সংবাদ প্রকাশ করছে যা আজও সত্য নয় । আলোক বালি ইউনিয়ন আওয়ামী লীগের একাধিক নেতৃবৃন্দ জানান ঘটনার দিন জাকির, হাসান, জজমিয়া গং মির্জাচর নিলক্ষা বাঁশগাড়ী থেকে প্রায় ৫০/৬০ জন দাঙ্গাবাজ অস্ত্র টেটাসহ ভাড়া করে এনেছিল খোদাদিলা গ্রামে লুটপাট করার জন্য জাকিরের মূল ব্যবসা বিভিন্ন গ্রামে অস্ত্র ককটেল টেটা সাপ্লাই দেওয়া তার বিরুদ্ধে একাধিক অস্ত্র মামলা রয়েছে অতি দ্রুত জাকির কে আইনের আওতায় আনা হোক ।


আপনার মতামত লিখুন :

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

এ জাতীয় আরো সংবাদ