শিরোনাম :
নবীনগরে রাতের আঁধারে ভেকু দিয়ে ফসলি জমি কাটার সময় ইউএনও’র বিশেষ অভিযানে আটক ৩  আর কখনো পাঠকের হাতে পত্রিকা তুলে দিবেন না লোকমান হেকিম চৌধুর নবীনগরে সাংবাদিকদের সাথে উপজেলা চেয়ারম্যান প্রার্থী শাহ আলমের মতবিনিময় নবীনগরে ১৫ আগস্ট জাতীয় শোক দিবস উপলক্ষে আলোচনা সভা, শিক্ষাবৃত্তি প্রদান ও শেখ হাসিনা একাডেমিক ভবন উদ্বোধন নবীনগরে ২৫টি ভূমিহীন ও গৃহহীন পরিবারের মাঝে আশ্রয়ণ প্রকল্পের জমি সহ পাকাঘর প্রদান নবীনগরে পিস্তলসহ এক যুবক গ্রেফতার নবীনগরে মাদকাসক্ত ছেলের ছুরির আঘাতে পিতা হাসপাতালে- অবস্থা শঙ্কামুক্ত না হওয়ায় ঢাকায় প্রেরণ  নবীনগর পৌরসভার মেয়র শিব শংকর দাশ ৩ হাজার তালের চারা গাছ রোপন করেছেন নবীনগরে ২দিন ব্যাপী সাহিত্য মেলার উদ্বোধন নবীনগরে তুচ্ছ ঘটনায় রক্তক্ষয়ী সংঘর্ষ, আহত ৩০
শনিবার, ০২ মার্চ ২০২৪, ১২:৩৮ অপরাহ্ন

নবীনগরে পরিবারের হাতে প্রাণ গেলো প্রতিবন্ধীর

প্রতিনিধির নাম / ২৭৮ বার
আপডেট : বৃহস্পতিবার, ২২ জুন, ২০২৩

নবীনগর (ব্রাহ্মণবাড়িয়া) প্রতিনিধি:ব্রাহ্মণবাড়িয়া নবীনগরে পরিবারের হাতে মাইর খেয়ে প্রাণ গেলো বাকপ্রতিবন্ধী হেদায়েত উল্লাহ (২৮) নামে এক যুবকের।

দীর্ঘদিন মৃত্যুর সাথে লড়াই করে আজ বৃহস্প্রতিবার (২২ জুন) ঢাকার একটি হাসপাতালে দুপুরে চিকিৎসাধীন অবস্থায় তার মৃত্যু হয়, নিহত হেদায়েত উল্লাহ উপজেলার শিবপুর ইউনিয়ন জুলাইপাড়া পূর্ব পাড়া
গ্রামের মজিদ মোল্লার ছেলে।

জানাযায়, জুলাইপাড়া পূর্ব পাড়া গ্রামের মজিদ মোল্লার ২ ছেলে ৪ মেয়ে। দুই ছেলের মধ্যে বড় ছেলে মোঃ হেদায়েত উল্লাহ জন্মের সময় থেকে সে বাকপ্রতিবন্ধী। হেদায়েত উল্লাহ তিন বছর পূর্বে একই গ্রামের আবুল খায়ের মিয়ার মেয়ে-কে বিয়ে করে। তার একটি সন্তান রয়েছে।
সে বাকপ্রতিবন্ধী হওয়ায় হেদায়েত উল্লাহ ও তার স্ত্রীর উপর প্রতিনিয়ত অমানসিক নির্যাতন করে আসছে পরিবারের সবাই। গত (১৬ জুন) সন্ধায় তার মা বাবা ছোট ভাই ও বোন মিলে তাকে মারধর করে গুরতর আহত করে। আহত অবস্থায় তাকে স্থানীয়রা উদ্ধার করে নবীনগর উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্স হাসপাতালে নিয়ে গেলে কর্তব্যরত চিকিৎসক তার অবস্থার অবনতি দেখে, তাকে উন্নত চিকিৎসার জন্য ঢাকা রেফার করে। দীর্ঘদির মৃত্যুর সাথে পাঞ্জা লড়ে আজ তার মৃত্যু হয়।

গ্রামবাসীর অভিযোগ সম্পত্তির লোভে পরিবারের লোকজন তাকে হত্যা করেছে।
খুবই অসহায় অবস্থায় ছিলেন এই প্রতিবন্ধী দম্পতি। কিন্তু পরিবারের কেউ খোঁজ রাখে না তাঁদের।

হেদায়েত উল্লার স্ত্রী রাকিবা আক্তার বলেন, আমাকে ও আমার স্বামীকে দীর্ঘদিন ধরে নির্যাতন করে আসছে আমার শুশুর, দেবর,ননদ ও শাশুরি। কয়েক দিন পূর্বে আমাকে মারধর করে বাড়ি থেকে বের করে দিয়েছে। গত ১৬ জুন রাতে আমার স্বামীকে মারধর করে গুরতর আহত করে। মারধর এর ঘটনায় থানায় অভিযোগ করেছি। আমার স্বামী চিকিৎসাধীন অবস্থায় আজ মৃত্যু বরণ করেন।আমার স্বামীর হত্যাকারীদের ফাঁসির দাবি করছি।

নবীনগর থানার ওসি সাইফুদ্দিন আনোয়ার বলেন, বিভিন্ন মাধ্যম থেকে বাকপ্রতিবন্ধী হেদায়েত উল্লাহ নামে এক যুবকের মৃত্যুর খবর পেয়েছি। এ ঘটনায় লিখিত অভিযোগ পেলে আইনগত ব্যবস্থা নিব।


আপনার মতামত লিখুন :

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

এ জাতীয় আরো সংবাদ