Home / খেলার সংবাদ / টেস্টের পর ওয়ানডেতেও হোয়াইটওয়াশ জিম্বাবুয়ে, সিরিজ সেরা মুশফিক

টেস্টের পর ওয়ানডেতেও হোয়াইটওয়াশ জিম্বাবুয়ে, সিরিজ সেরা মুশফিক

১ ডিসেম্বর (তিতাস নিউজ): তিন ম্যাচের টেস্ট সিরিজের পর ওয়ানডেতেও হোয়াইটওয়াশ হলো সফরকারী জিম্বাবুয়ে। পাঁচ ম্যাচের ওয়ানডে সিরিজের শেষ ম্যাচে সোমবার জিম্বাবুয়েকে ৫ উইকেটে হারিয়ে ৫-০ ব্যবধানে সিরিজ জিতে নিয়েছে বাংলাদেশ।

মিরপুর শেরে বাংলা জাতীয় স্টেডিয়ামে পঞ্চম ও শেষ ম্যাচে টস জিতে আগে ব্যাট করতে নেমে ৩০ ওভারে ১২৮ রানেই গুটিয়ে যায় সফরকারীরা। জিম্বাবুয়ের পক্ষে সর্বোচ্চ ৫২ রান করেন উদ্বোধনী ব্যাটসম্যান হ্যামিল্টন মাসাকাদজা। ভুসি সিবান্দা করেন ৩৭ রান। এ দুই ব্যাটসম্যান ছাড়া সফরকারীদের আর কোনো ব্যাটসম্যান দুই অংকের ঘরে যেতে পারেননি।

বাংলাদেশের পক্ষে এই ম্যাচের মধ্য দিয়ে একদিনের ক্রিকেটে অভিষেক হওয়া বাঁহাতি স্পিনার তাইজুল ইসলাম ৭ ওভার হাত ঘুরিয়ে হ্যাট্রিকসহ ১১ রানের বিনিময়ে নিয়েছেন ৪টি উইকেট। এছাড়া, অলরাউন্ডার সাকিব আল হাসান ৩০ রানে ৩টি, লেগ স্পিনার জুবায়ের হোসেন ৪১ রানে ২টি ও অধিনায়ক মাশরাফি বিন মুর্তজা ২৩ রানের বিনিময়ে ১টি উইকেট নেন।

১২৯ রানের সহজ জয়ের লক্ষ্যে ব্যাট করতে নেমে বাংলাদেশের শুরুটাও ভালো হয়নি। ৫৮ রানে ৪ উইকেট হারিয়ে কিছুটা বিপর্যয়ে পড়লেও শেষ পর্যন্ত মাহমুদুল্লার অর্ধশতকের ইনিংসে ভর করে ২৪ ওভার ৩ বলে ৫ উইকেট হারিয়ে ১৩০ রান করে কাঙ্খিত জয় নিয়েই মাঠ ছাড়ে টাইগাররা। দলের পক্ষে সর্বোচ্চ ৫১ রান করে অপরাজিত থাকেন মাহমুদুল্লাহ। এছাড়া সৌম্য সরকার করেন দ্বিতীয় সর্বোচ্চ ২০ রান।

জয়ের জন্য ১২৯ রানের লক্ষ্যে ব্যাট করতে নেমে পঞ্চম ওভারেই দলীয় ১৮ রানে প্রথম উইকেট হারায় বাংলাদেশ। জিম্বাবুয়ের পেসার পানিয়াঙ্গারার বলে সলোমন মিরের হাতে ক্যাচ দিয়ে বিদায় নেয়ার আগে উদ্বোধনী ব্যাটসম্যান তামিম ইকবাল করেন ১০ রান।

পরের ওভারেই টেন্ডাই চাতারার বলে স্লিপে মাসাকাদজার হাতে ক্যাচ দিয়ে বিদায় নেন আরেক উদ্বোধনী ব্যাটসম্যান এনামুল হক। তিনি করেন ৮ রান।

দশম ওভারে এই ম্যাচের মধ্য দিয়ে একদিনের ক্রিকেটে অভিষেক হওয়া সৌম্য সরকারকে সাজঘরে ফেরত পাঠিয়ে বাংলাদেশ ইনিংসে আবারও আঘাত হানেন চাতারা। দলীয় ৪৭ রানে সিকান্দার রাজার হাতে ক্যাচ দিয়ে বিদায় নেওয়ার আগে সৌম্য করেন ২০ রান। এরপর ১৩তম ওভারে দলীয় ৫৮ সাকিব আল হাসান আউট হয়ে সাজঘরে ফিরে গেলে বাংলাদেশের চতুর্থ উইকেটের পতন হয়। পানিয়াঙ্গারার বলে স্লিপে মাসাকাদজার হাতে ক্যাচ দিয়ে বিদায় নেওয়ার আগে সাকিব কোনো রান করতে পারেননি।

বাংলাদেশের ইনিংসের ১৯তম ওভারে দলীয় ৯৩ রানে বাংলাদেশের পঞ্চম উইকেটের পতন হয়। চাতারার করা ওই ওভারের চতুর্থ বলে ব্রেন্ডন টেইলরের হাতে ক্যাচ দিয়ে বিদায় নেন মুশফিকুর রহিম। তিনি করেন ১১ রান।

এরপর ষষ্ঠ উইকেটে সাব্বির রহমানকে নিয়ে অবিচ্ছিন্ন ৩৭ রানের জুটি গড়ে দলকে জয়ের বন্দরে পৌঁছে দেন মাহমুদুল্লাহ।

একদিনের ক্রিকেটের ইতিহাসে প্রথম খেলোয়াড় হিসেবে অভিষেকেই হ্যাট্রিকসহ ৪ উইকেট নেয়া তাইজুল ইসলাম ম্যাচের সেরা খেলোয়াড় নির্বাচিত হয়েছেন। আর ২১৩ রান করে ওয়ানডে সিরিজের সেরা খেলোয়াড় নির্বাচিত হয়েছেন মুশফিকুর রহিম।

Check Also

সর্বকালের সেরা অধিনায়কদের তালিকায় মাশরাফি

১৬ জুলাই (তিতাস নিউজ): মাশরাফি নামক জাদুর কাঠির ছোঁয়ায় ২০১৫ সাল স্বপ্নের মত কাটিয়েছে বাংলাদেশের ...