Home / রাজনীতি / জামায়াত নেতা কামারুজ্জামানের মৃত্যুদণ্ডের পূর্ণাঙ্গ রায় প্রকাশ

জামায়াত নেতা কামারুজ্জামানের মৃত্যুদণ্ডের পূর্ণাঙ্গ রায় প্রকাশ

১৮ ফেব্রুয়ারি (তিতাস নিউজ): একাত্তরে মানবতা বিরোধী অপরাধ মামলায় জামায়াতে ইসলামীর সহকারি সেক্রেটারি জেনারেল মোহাম্মদ কামারুজ্জামানের মৃত্যুদণ্ডের পূর্ণাঙ্গ অনুলিপি প্রকাশ করেছে আপিল বিভাগ।

প্রধান বিচারপতি সুরেন্দ্র কুমার সিনহাসহ চারজন বিচারপতির স্বাক্ষর শেষে আজ (বুধবার) দুপুরে ৫৭৭ পৃষ্ঠার রায়ের কপি প্রকাশ করা হয়। বেঞ্চের সদস্যরা হলেন- বিচারপতি মো. আবদুল ওয়াহহাব মিঞা, বিচারপতি হাসান ফয়েজ সিদ্দিকী ও  বিচারপতি এএইচএম শামসুদ্দিন চৌধুরী।

নিয়মানুযায়ী, রায়ের সার্টিফায়েড কপি তৈরির পর কামারুজ্জামান ১৫ দিন সময় পাবেন রিভিউ করার জন্য। যদি এই সময়ের মধ্যে কামারুজ্জামান রিভিউ করেন তাহলে রিভিউ নিষ্পত্তি হওয়ার পর রায় কার্যকর করতে পারবে সরকার। আর তিনি যদি রিভিউ না করেন তবে সরকারকে রায় কার্যকর করতে ১৫ দিন অপেক্ষা করতে হবে বলে আপিল বিভাগ জানিয়েছে।

২০১৪ সালের ৩ নভেম্বর মানবতাবিরোধী অপরাধের অভিযোগে জামায়াত নেতা মুহাম্মদ কামারুজ্জামানের মৃত্যুদণ্ড বহাল রাখেন সুপ্রিম কোর্টের আপিল বিভাগ।

এর আগে ২০১৩ সালের ৯ মে মানবতাবিরোধী অপরাধের দায়ে জামায়াত নেতা মুহাম্মদ কামারুজ্জামানের বিরুদ্ধে মৃত্যুদণ্ড দিয়ে রায় ঘোষণা করেন আন্তর্জাতিক অপরাধ ট্রাইব্যুনাল-২।

কামারুজ্জামানের বিরুদ্ধে গণহত্যা, হত্যা, অপহরণ, ধর্ষণ, অগ্নিসংযোগ, নির্যাতন, লুটপাটসহ প্রসিকিউশনের আনা সাতটি অভিযোগের মধ্যে পাঁচটিই সন্দেহাতীতভাবে প্রমাণিত হওয়ায় মৃত্যুদণ্ডসহ বিভিন্ন মেয়াদে সাজা দেয় ট্রাইব্যুনাল। এছাড়া বাকি দুটি অভিযোগ প্রমাণ হয়নি মর্মে তাকে খালাস দেওয়া হয়।

এদিকে, আইনমন্ত্রী আনিসুল হক জানিয়েছেন, আগামী রোববারের মধ্যে  সার্টিফায়েড কপি তৈরি হয়ে যাবে।

অ্যাটর্নি জেনারেল মাহবুবে আলম বলেছেন, কামারুজ্জামানের রায় কার্যকরের ক্ষেত্রে দিন ধার্য করতে অসুবিধা নেই। তবে কামারুজ্জামানের পক্ষ থেকে রিভিউ আবেদন দাখিল করার পরপরই মৃত্যুদণ্ড কার্যকরের প্রক্রিয়া স্থগিত হয়ে যাবে।

তিনি বলেন, আজকেই আপিল বিভাগ থেকে রায়ের কপি ট্রাইব্যুনালে পাঠানো হবে। তারপর ট্রাইব্যুনাল মৃত্যুপরোয়ানা জারি করবে।

Check Also

সংঘর্ষে যারা জড়িত ওরা আমাদের কেউ না

সংবাদ বিজ্ঞপ্তি———————————————- মুরাদনগর ও কুমিল্লা উত্তর জেলা আওয়ামীলীগ——————————————————————————————————————– ‘সংঘর্ষে যারা জড়িত ওরা আমাদের কেউ না’ ...