শিরোনাম :
নবীনগরে সাংবাদিকদের সাথে উপজেলা চেয়ারম্যান প্রার্থী শাহ আলমের মতবিনিময় নবীনগরে ১৫ আগস্ট জাতীয় শোক দিবস উপলক্ষে আলোচনা সভা, শিক্ষাবৃত্তি প্রদান ও শেখ হাসিনা একাডেমিক ভবন উদ্বোধন নবীনগরে ২৫টি ভূমিহীন ও গৃহহীন পরিবারের মাঝে আশ্রয়ণ প্রকল্পের জমি সহ পাকাঘর প্রদান নবীনগরে পিস্তলসহ এক যুবক গ্রেফতার নবীনগরে মাদকাসক্ত ছেলের ছুরির আঘাতে পিতা হাসপাতালে- অবস্থা শঙ্কামুক্ত না হওয়ায় ঢাকায় প্রেরণ  নবীনগর পৌরসভার মেয়র শিব শংকর দাশ ৩ হাজার তালের চারা গাছ রোপন করেছেন নবীনগরে ২দিন ব্যাপী সাহিত্য মেলার উদ্বোধন নবীনগরে তুচ্ছ ঘটনায় রক্তক্ষয়ী সংঘর্ষ, আহত ৩০ নবীনগরে দেশীয় অস্ত্র সস্ত্র নিয়ে মুক্তিযোদ্ধার বাড়ীতে হামলা ও ভাংচুর আটক (১)। নবীনগর উপজেলা আওয়ামীলীগের সাবেক সভাপতি ও সাবেক ইউপি চেয়ারম্যান  ফুল মিয়ার কুলখানি সম্পন্ন
বৃহস্পতিবার, ২৯ ফেব্রুয়ারী ২০২৪, ০২:১৪ অপরাহ্ন

জনগনই হচ্ছেন আমার প্রাণশক্তি – ফয়জুর রহমান বাদল

প্রতিনিধির নাম / ১০৮ বার
আপডেট : মঙ্গলবার, ১৬ মে, ২০২৩

নবীনগর(ব্রাহ্মণবাড়িয়া)প্রতিনিধি: আমার বাবা সার্জেন্ট মরহুম মুজিবুর রহমান, ঐতিহাসিক আগরতলা ষড়যন্ত্রমূলক মিথ্যা মামলার অন্যতম একজন আসামী ছিলেন। উত্তরাধিকার সূত্রেই আমার রক্ত কনিকায় বঙ্গবন্ধুর আদর্শ এবং মুক্তিযুদ্ধের চেতনা বহমান। একজন বীর মুক্তিযোদ্ধার সন্তান হিসেবে বাংলাদেশ আওয়ামীলীগ আমার রাজনীতি ও প্রেরণার একমাত্র উৎস। দলীয় নেতাকর্মী ও সাধারণ জনগনই হচ্ছেন আমার প্রাণশক্তি,আর সে কারনেই জনগনের ‘সেবক’ হয়ে আজীবন নবীনগরবাসির পাশে থেকে নবীনগরের উন্নয়ন ও জনগনের খেদমতসহ বিগতদিনের আমার অসমাপ্ত কাজগুলো সমাপ্ত করে নবীনগর উপজেলাকে সারাদেশে একটি ‘উন্নয়নের রোড মডেল’ হিসেবে গড়ে তোলার লক্ষ নিয়ে আবারও ব্রাহ্মণবাড়িয়া-৫ (নবীনগর) আসন থেকে আগামি দ্বাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচনে আওয়ামীলীগের নৌকা প্রতীকে মনোনয়ন চাইবো। কথাগুলো বলেছেন, ব্রাহ্মণবাড়িয়া-৫ (নবীনগর) আসনের সাবেক এমপি ও নবীনগর উপজেলা আওয়ামীলীগের বর্তমান সভাপতি ফয়জুর রহমান বাদল।

আগামী দ্বাদশ নির্বাচনে আওয়ামীলীগের দলীয় মনোনয়ন প্রত্যাশা ও নবীনগরের উন্নয়ন নিয়ে ফয়জুর রহমান বাদল নবীনগরবাসীর উদ্দ্যেশ্যে একটি লিখিত বক্তব্যে বলেন,আমি আপনাদের অকৃতিম ভালবাসায় সিক্ত হয়ে দীর্ঘদিন যাবৎ নবীনগরের রাজনৈতিক অঙ্গনে ওতপ্রোতভাবে সম্পৃক্ত আছি। একজন বীর মুক্তিযোদ্ধার সন্তান হিসেবে বাংলাদেশ আওয়ামীলীগ আমার রাজনীতি ও প্রেরণার একমাত্র উৎস। দলীয় নেতাকর্মীদের অকুণ্ঠ সমর্থন, ভালোবাসা ও সার্বিক সহযোগিতা নিয়ে নবীনগর উপজেলা আওয়ামীলীগের সভাপতি পদে দুই দুইবার অধিষ্ঠ হয়ে দায়িত্ব পালন করে যাচ্ছি। আমার জীবনে যতই বাঁধা বিপত্তি, প্রতিবন্ধকতা আসুক না কেন, আমি আমার মেধা, যোগ্যতা, কর্তব্যনিষ্ঠা সর্বোপরি সর্বশক্তি দিয়ে নবীনগর উপজেলা আওয়ামীলীগকে তৃণমূল পর্যায়ে শক্তিশালী করতে কাজ করে যাবো। দলকে সুশৃংখল ও ঐক্যবদ্ধ রাখতে দলের স্বার্থে অতীতেও দৃঢ় প্রতিজ্ঞ ছিলাম, এখনও আছি এবং আজীবন আওয়ামীলীগের একজন কর্মী হিসেবে প্রিয়নেত্রী জাতির জনকের কন্যা, মাননীয় প্রধানমন্ত্রী দেশরতœ শেখ হাসিনার যথাযথ নির্দেশনা বাস্তবায়নেও সচেষ্ট থাকবো। আমার সর্বোচ্চ মেধা, যোগ্যতা, আন্তরিকতা, মননশীলতা দিয়ে আপ্রাণ চেষ্টা করে যাচ্ছি আওয়ামীলীগের তৃণমূলের প্রতিটি নেতাকর্মী সমর্থকদেরকে যথাযথ মর্যাদার সঙ্গে আগলে রাখতে। আমি মনে প্রানে বিশ^াস করি, দলীয় নেতাকর্মী ও সাধারণ জনগনই হচ্ছেন আমার প্রাণশক্তি এবং প্রেরণার উৎস্য।
তিনি আরও বলেন, দশম জাতীয় সংসদ নির্বাচনে আপনারা আমাকে নির্বাচিত করে যে দায়িত্ব দিয়েছিলেন, সেই দায়িত্ব ও কর্তব্য যথাযথভাবে পালন করার চেষ্টা করেছি। ২০১৪ থেকে ২০১৮ সাল পযর্ন্ত আমি নবীনগরের উন্নয়নে কি কাজ করেছি আর কি কাজ করি নাই, সেটির বিচার বিশ্লেষণ ও বিবেচনা আপনারাই করবেন। সেই সময়ে নবীনগর উপজেলার সামগ্রিক উন্নয়নে প্রায় ১ হাজার ২’শ কোটি টাকার উন্নয়ন কাজের প্রকল্প ও পরিকল্পনা গ্রহণ করা হয়েছিলো। সময়ের অভাবে সবগুলো কাজ সমাপ্ত করতে পারিনি। কিছু গুরুত্বপূর্ণ দৃশ্যমান কাজ অসমাপ্ত রয়ে গেছে। আমার রেখে যাওয়া নবীনগরবাসীর প্রত্যাশিত সেই সকল অসমাপ্ত কাজগুলো সমাপ্ত করাসহ আপনাদের ‘সেবক’ হওয়ার জন্য আগামি সংসদ নির্বাচনে আমি আবারও এই আসন (নবীনগর) থেকে আওয়ামীলীগের নৌকা প্রতীকে মনোনয়ন চাইবো। আপনাদের সকলের সার্বিক সহযোগিতা ও দোয়া/আশীর্বাদ আমার একান্ত প্রয়োজন। আমার বিশ্বাস, নবীনগর উপজেলা আওয়ামী লীগের সর্বস্তরের নেতাকর্মী সমর্থকের পাশাপাশি এখানকার প্রতিটি সাধারণ জনগণ আমাকে স্নেহ করেন ও ভালবাসেন। আপনাদের এই ভালবাসাকে আমার জীবন চলার পথে পাথেয় করে আমি আগামী দ্বাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচনে ব্রাহ্মণবাড়িয়া-৫ (নবীনগর) আসন থেকে বাংলাদেশ আওয়ামী লীগের ‘নৌকা’প্রতীকে বঙ্গবন্ধু কন্যা জননেত্রী শেখ হাসিনার স্নেহধন্য ও আস্থাভাজন কর্মী হিসেবে একজন দক্ষ ‘মাঝি’ হতে চাই।
তিনি আরও বলেন, ২০১৪ থেকে ২০১৮ পর্যন্ত আমি সংসদ সদস্য থাকাকালে অবহেলিত নবীনগরের সার্বিক যোগাযোগ ব্যবস্থার উন্নয়ন, প্রাতিষ্ঠানিক অবকাঠামোগত উন্নয়ন ও শিক্ষার মান উন্নয়ন এবং সামাজিক নিরাপত্তা ও শান্তিশৃঙ্খলা রক্ষায় আমি আমার সর্বোচ্চ শক্তি দিয়ে নবীনগরবাসীর জন্য আন্তরিকভাবে কাজ করে গিয়েছি এবং আগামী দ্বাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচনে আওয়ামীলীগের মনোনয়ন পেয়ে আবারও এ আসন থেকে এমপি নির্বাচিত হতে পারলে, আমার রেখে যাওয়া সেইসব অসমাপ্ত কাজগুলোর সমাপ্ত করাসহ নতুন নতুন প্রকল্প গ্রহণ ও বাস্তবায়নের মাধ্যমে নবীনগরের সামগ্রিক উন্নয়নে আরও কিছু দৃশ্যমান কাজের মাধ্যমে নবীনগর উপজেলাকে সারাদেশে একটি ‘উন্নয়নের রোড মডেল’ হিসেবে গড়ে তুলবো ইনশাল্লাহ ।


আপনার মতামত লিখুন :

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

এ জাতীয় আরো সংবাদ